হিন্দু বর্ষপঞ্জী

হিন্দু পঞ্জিকার একটি পৃষ্ঠা (১৮৭১-৭২)

হিন্দু পঞ্জিকা বা হিন্দু পঞ্চাঙ্গ হল হিন্দু ধর্মে প্রথাগত ভাবে ব্যবহৃত চান্দ্র-নাক্ষত্র এবং নাক্ষত্র পঞ্জিকাসমূহের সমষ্টিগত নাম।

আঞ্চলিক বৈচিত্র্যের কারণে হিন্দু পঞ্জিকার অসংখ্য সংস্করণ দেখা যায়। এদের মধ্যে অধিক প্রভাবশালী জাতীয় ও আঞ্চলিক হিন্দু পঞ্জিকাগুলি হল– নেপালের সরকারি নেপালি পঞ্জিকা এবং ভারতের বাংলা পঞ্জিকা, পঞ্জাবি পঞ্জিকা, ওড়িয়া পঞ্জিকা, মলয়ালম পঞ্জিকা, কন্নড় পঞ্জিকা, টুলু পঞ্জিকা, তামিল পঞ্জিকা, বিক্রম সংবৎদাক্ষিণাত্যের কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, তেলঙ্গাণা আর অন্ধ্র প্রদেশের শালিবাহন পঞ্জিকা। [১]

আঞ্চলিক হিন্দু পঞ্জিকাগুলির একটি সাধারণ বৈশিষ্ট্য হল, বারোটি মাসের নাম সব পঞ্জিকাতেই একই আছে। যদিও বিভিন্ন অঞ্চলে বছরের প্রথম মাসটি বিভিন্ন।

কম্বোডিয়া, লাওস, মায়ানমার, শ্রীলঙ্কাথাইল্যান্ডের বৌদ্ধ বর্ষপঞ্জি আর কিছু সৌর-চান্দ্র পঞ্জিকা হিন্দু পঞ্জিকারই প্রাচীন সংস্করণের উপর প্রতিষ্ঠিত।

বেশিরভাগ হিন্দু পঞ্জিকাই ৫ম ও ৬ষ্ঠ শতাব্দীতে গুপ্তযুগের আর্যভট্ট ও বরাহমিহিরের জ্যোতির্বিদ্যার ফসল। এই জ্যোতির্বিদ্যার মূল আধার ছিল প্রাচীন হিন্দু গ্রন্থ বেদাঙ্গ জ্যোতিষ, যাকে পরে সংস্কার করে সূর্য সিদ্ধান্ত গ্রন্থটি লিখিত হয়। মধ্যযুগের এই পঞ্জিকার আঞ্চলিক বৈচিত্র্য সৃষ্ট হতে থাকে। দ্বাদশ শতাব্দীতে দ্বিতীয় ভাস্কর জ্যোতির্বিদ্যার নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেন।

বর্ষপঞ্জির আঞ্চলিক সংস্করণে ওই গুপ্তযুগীয় গণনারই কিছু পার্থক্য দেখা যায়, তবে প্রতিটি সংস্করণের ভিত্তি মূলত হিন্দু সৌর-চান্দ্র পঞ্জিকা।

১৯৫৭ সালে সেই হিন্দু পঞ্জিকার ওপর ভিত্তি করেই ভারতের জাতীয় বর্ষপঞ্জি শক সংবৎ গঠিত হয়।

দিন

হিন্দু পঞ্চাঙ্গে, দিন বা দিবস হল দুটি সূর্যোদয়ের মধ্যবর্তী সময়। চাঁদের কৌণিক অবস্থানের (তিথি, নীচে দেখুন) ওপর ভিত্তি করে দিন নির্ধারণ করা হয়। এর জন্য আলাদা করে দিনের সংখ্যার কোনো প্রয়োজন হয় না।

দিন নির্ধারণের পাঁচটি অঙ্গ রয়েছে। যথা,

  1. তিথি (চাঁদের দশাকোণ, নাক্ষত্র মাসের ৩০ অংশ), দিনের ৬৩৬৪ অংশ।
  2. বাসর বা বার (সপ্তাহের একদিন); যেমন, রবিবার, সোমবার, প্রভৃতি। সাতটি বার মিলে এক সপ্তাহ।
  3. নক্ষত্র (চান্দ্র মাসের ২৭ অংশ), প্রায় ২৫৬০ ঘণ্টা।
  4. যোগ (নাক্ষত্র মাসের ২৭ অংশ)।
  5. করণ (চাঁদের অর্ধদশা, নাক্ষত্র মাসের ৬০ অংশ)।

এই পাঁচটি বৈশিষ্ট্য বা অঙ্গ নিয়ে তৈরি হয় পঞ্চাঙ্গ (পঞ্চ + অঙ্গ)।

নক্ষত্র, যোগ এবং করণ সাধারণত জ্যোতিষ ও ধর্মীয় ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়।

তিথি

নাক্ষত্র মাসের ৩০ অংশকে তিথি বলা হয়। সূর্য ও চাঁদের পারস্পরিক প্রতিটি ১২° কোণই হল প্রতিটি তিথি। এক-একটি তিথির দৈর্ঘ্য প্রায় ১৯ থেকে ২৬ ঘণ্টা হতে পারে। [২]

কোনো তিথির সময়সীমার মধ্যে একটি সূর্যোদয় পড়লে, সূর্যোদয়ের সময় থেকে ওই তিথি অনুযায়ী দিনটির তারিখ বা সংখ্যা নির্ধারিত হয়। একটি তিথির মধ্যে দুটো সূর্যোদয় পড়লে, দ্বিতীয় দিনটি অতিরিক্ত দিন হিসেবে গণ্য হয়। আবার তিথির ভেতরে কোনো সূর্যোদয় না থাকলে, ওই তিথির জন্য কোনো তারিখ দেওয়া হয় না।

বার

সপ্তাহের সাতটি দিনের এক-একটি দিনকে বাসর বা বার বলে। পাশ্চাত্য সংস্কৃতিতে এই বারের ধারণা ও নামের সাথে হিন্দু বারগুলির গভীর মিল আছে।

সংখ্যা দিনের সংস্কৃত নাম (দিনের প্রারম্ভ সূর্যোদয় থেকে) নেপালি পঞ্জিকা হিন্দি নাম ভোজপুরি নাম পঞ্জাবি নাম বাংলা নাম মরাঠি নাম ওড়িয়া নাম কন্নড় নাম তেলুগু নাম তামিল নাম মলয়ালম নাম গুজরাতি নাম ইংরেজিলাতিন নাম (দিনের প্রারম্ভ ০০:০০ ঘণ্টায়) গ্রহ
রবিবাসর
रविवासर
Aaitabar
आइतवार
Ravivār
रविवार
Aitwār
एतवार
Aitvār
ਐਤਵਾਰ
রবিবার Ravivār
रविवार
Rabibāra
ରବିବାର
Bhānuvāra
ಭಾನುವಾರ
Ādivāraṁ
ఆదివారం
Nyayiru
ஞாயிறு
Njaayar
ഞായർ
Ravivār
રવિવાર
Sunday সূর্য
সোমবাসর
सोमवासर
Sombar
सोमवार
Somavār
सोमवार
Somār
सोमार
Somavār
ਸੋਮਵਾਰ
সোমবার Somavār
सोमवार
Somabāra
ସୋମବାର
Sōmavāra
ಸೋಮವಾರ
Sōmavāraṁ
సోమవారం
Thingal
திங்கள்
Thinkal
തിങ്കൾ
Sōmavār
સોમવાર
Monday চন্দ্র
মঙ্গলবাসর
मंगलवासर
Mangalbar
मंगलवार
Maṅgalavār
मंगलवार
Mangar
मंगर
Maṅgalavār
ਮੰਗਲਵਾਰ
মঙ্গলবার Maṅgaḷavār
मंगळवार
Maṅgaḷabāra
ମଙ୍ଗଳବାର
Maṁgaḷavāra
ಮಂಗಳವಾರ
Maṁgaḷavāraṁ
మంగళవారం
Chevvai
செவ்வாய்
Chovva
ചൊവ്വ
Maṅgaḷavār
મંગળવાર
Tuesday মঙ্গল
বুধবাসর
बुधवासर
Budhabar
बुधवार
Budhavāra
बुधवार
Buddh
बुध
Buddhavār
ਬੁੱਧਵਾਰ
বুধবার Budhavār
बुधवार
Budhabāra
ବୁଧବାର
Budhavāra
ಬುಧವಾರ
Budhavāraṁ
బుధవారం
Arivan (Tamil tradition)
அறிவன்
Budhan
ബുധൻ
Budhavār
બુધવાર
Wednesday বুধ
গুরুবাসর
गुरुवासर
বা
বৃহস্পতিবাসর
बृहस्पतिवासर
Bihibar
बिहिवार
Guruvār
गुरुवार
Bi'phey
बियफे
Vīravār
ਵੀਰਵਾਰ
বৃহস্পতিবার Guruvār
गुरुवार
Gurubāra
ଗୁରୁବାର
Guruvāra
ಗುರುವಾರ
Guruvāraṁ, Br̥haspativāraṁ
గురువారం, బృహస్పతివారం, లక్ష్మీవారం
Vyazhan
வியாழன்
Vyaazham
വ്യാഴം
Guruvār
ગુરુવાર
Thursday দেবগুরু বৃহস্পতি
শুক্রবাসর
शुक्रवासर
Sukrabar
शुक्रवार
Śukravār
शुक्रवार
Sukkar
सुक्कर
Śukkaravār
ਸ਼ੁੱਕਰਵਾਰ
শুক্রবার Śukravār
शुक्रवार
Śukrabāra
ଶୁକ୍ରବାର
Śukravāra
ಶುಕ್ರವಾರ
Śukravāraṁ
శుక్రవారం
Velli
வெள்ளி்
Velli
വെള്ളി
Śukravār
શુક્રવાર
Friday শুক্র
শনিবাসর
शनिवासर
Sanibar
शनिवार
Śanivār
शनिवार
Sanichchar
सनिच्चर
Śanīvār
ਸ਼ਨੀਵਾਰ
Chhanicchharavār
ਛਨਿੱਚਰਵਾਰ
শনিবার Śanivār
शनिवार
Śanibāra
ଶନିବାର
Śanivāra
ಶನಿವಾರ
Śanivāraṁ
శనివారం
Kaari (Tamil tradition)
காரி
Shani
ശനി
Śanivār
શનિવાર
Saturday শনি

সংস্কৃত শব্দ বাসরকে বিভিন্ন সংস্কৃত-জাত ও প্রভাবিত ভাষাতে বার বলা হয়। বারগুলির নাম বিভিন্ন ভারতীয় ভাষায় বিভিন্ন হতে পারে। তবে মূলত ওই বারের সাথে সম্পর্কিত মহাজাগতিক বস্তু বা গ্রহের নাম অনুযায়ী বারের নাম হয়।

নক্ষত্র

সূর্যের অয়নবৃত্তকে ২৭টি নক্ষত্র-তে ভাগ করা যায়, এগুলির প্রত্যেকটি বাস্তবে কিছু তারামণ্ডল। নক্ষত্রগুলি গ্রহের পরিক্রমণকে এক-একটি নির্দিষ্ট তারার সাপেক্ষে চিহ্নিত করে। ২৭টি নক্ষত্রের মোট সময়কাল ২৭ দিন ৭ ঘণ্টা। অতিরিক্ত ভগ্নাংশ সময়টি নিয়ন্ত্রিত হয় ২৮তম একটি নক্ষত্র দ্বারা, যার নাম অভিজিৎ। ঋগ্বেদের সময় (১৫০০ খ্রিঃপূঃ) থেকে নক্ষত্রের এই গণনা চলে আসছে।

অয়নবৃত্ত পশ্চিম থেকে পূর্ব দিক বরাবর ২৭টি নক্ষত্রে ভাগ করা হয়েছে। চিত্রা (Spica) নামক নক্ষত্রের ঠিক বিপরীত দিকে অবস্থিত একটি বিন্দুকে এই চক্রের আদিবিন্দু ধরা হয়েছে (মতান্তরও আছে)। একে বলা হয় মেষাদি; এই অবস্থা তখন আসে, যখন বিষুবরেখা অয়নবৃত্তকে ছেদ করে। একে মহাবিষুবও বলা হয়। বর্তমানে এটি মীন রাশিতে অবস্থান করছে, মেষ রাশির শুরু থেকে ২৮° আগে। মেষাদি ও বর্তমান বিষুবরেখার অবস্থানের পার্থক্যকে বলা হয় অয়নাংশ – মহাবিষুব তার নিরয়ণ অবস্থান থেকে কতটুকু বিচ্যুত হয়েছে, তার কৌণিক মান দিয়ে এটি গণনা করা হয়। একটি পুরো অয়নবৃত্ত পরিক্রমণের সময় ২৫৮০০ বছর। মোটামুটি ২৮৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দে সূর্যসিদ্ধান্ত লিখবার সময় বিষুবরেখা ঠিক চিত্রা নক্ষত্রের বিপরীতে অবস্থান করেছিল।

নীচে নক্ষত্রসমূহের নাম ও মহাকাশে তাদের অবস্থানের একটি ছক দেওয়া হল। স্বাভাবিকভাবে এরও কিছু ভিন্ন সংস্করণ আছে। ছকের ডানদিকে সেই সংশ্লিষ্ট নক্ষত্রের আধুনিক বিজ্ঞানসম্মত নাম দেওয়া হয়েছে। এখানে লক্ষণীয় যে, নক্ষত্র শব্দটি কোনো একটি তারাকে নির্দেশ করে না, বরং শব্দটির দ্বারা কোনো একাধিক তারা-সমন্বিত তারামণ্ডলকে বোঝানো হয়। আসলে সংস্কৃতে একাধিক তারাকে একসাথে নক্ষত্র বলে।

# নক্ষত্রের সংস্কৃত নাম বাংলা নাম মলয়ালম নাম তামিল নাম তেলুগু নাম কন্নড় নাম নক্ষত্রের পাশ্চাত্য নাম
অশ্বিনী
अश्विनी
অশ্বিনী Ashvati
അശ്വതി
Aswini
அஸ்வினி
Aśvinī
అశ్విని
Aśvinī
ಅಶ್ವಿನಿ
β ও γ Arietis
ভরণী
भरणी
ভরণী Bharani
ഭരണി
Barani
பரணி
Bharani
భరణి
Bharani
ಭರಣಿ
৩৫, ৩৯, ও ৪১ Arietis
কৃত্তিকা
कृत्तिका
কৃত্তিকা Kārttika
കാർത്തിക
Kārthikai
கார்த்திகை
Krittika
కృత్తిక
Kruthike
ಕೃತಿಕೆ
Pleiades
রোহিণী
रोहिणी
Rohinī
রোহিণী
Rōhini
രോഹിണി
Rōhini
ரோகிணி
Rōhini
రోహిణి
Rōhini
ರೋಹಿಣಿ
Aldebaran
মৃগশীর্ষ
मृगशिर्ष
মৃগশিরা Makayiram
മകയിരം
Mirugasīridam
மிருகசீரிடம்
Mrigaśira
మృగశిర
Mrigaśira
ಮೃಗಶಿರ
λ, φ Orionis
আর্দ্রা
आद्रा
আর্দ্রা Ātira or Tiruvātira
ആതിര (തിരുവാതിര)
Thiruvādhirai
திருவாதிரை
Arudra
ఆరుద్ర
Aridra
ಆರಿದ್ರ
Betelgeuse
পুনর্বসু
पुनर्वसु
পুনর্বসু Punartam
പുണർതം
Punarpoosam
புனர்பூசம்
Punarvasu
పునర్వసు
Punarvasu
ಪುನರ್ವಸು
Castor ও Pollux
পুষ্য
पुष्य
পুষ্যা (তিষ্যা) Pūyam
പൂയം
Poosam
பூசம்
Puṣyami
పుష్యమి
Puṣya
ಪುಷ್ಯ
γ, δ ও θ Cancri
আশ্লেষা
आश्लेषा
অশ্লেষা Āyilyam
ആയില്യം
Ayilyam
ஆயில்யம்
Aślesha
ఆశ్లేష
Aślesha
ಆಶ್ಲೇಷ
δ, ε, η, ρ, ও σ Hydrae
১০ মঘা
मघा
মঘা Makam
മകം
Magam
மகம்
Makha or Magha
మఖ or మాఘ
Makha
ಮಖ
Regulus
১১ পূর্ব ফাল্গুনী
पूर्व फाल्गुनी
পূর্বফল্গুনী Pūram
പൂരം
Pooram
பூரம்
Pūrva Phalguṇī or Pubba
పూర్వా ఫల్గుణి or పుబ్బ
Pubba
ಪುಬ್ಬ
δ ও θ Leonis
১২ উত্তর ফাল্গুনী
उत्तर फाल्गुनी
উত্তরফল্গুনী Utram
ഉത്രം
Uthiram
உத்திரம்
Uttara Phalguṇi or Uttara
ఉత్తర ఫల్గుణి or ఉత్తర
Utthara
ಉತ್ತರ
Denebola
১৩ হস্ত
हस्त
হস্তা Attam
അത്തം
Astham
அஸ்தம்
Hasta
హస్త
Hasta
ಹಸ್ತ
α, β, γ, δ ও ε Corvi
১৪ চিত্রা
चित्रा
চিত্রা Chittira (Chitra)
ചിത്തിര (ചിത്ര)
Chithirai
சித்திரை
Chittā or Chitrā
చిత్తా or చిత్రా
Chitta
ಚಿತ್ತ
Spica
১৫ স্বাতি
स्वाति
স্বাতী Chōti
ചോതി
Swathi
சுவாதி
Svāti
స్వాతి
Svāti
ಸ್ವಾತಿ
Arcturus
১৬ বিশাখা
विशाखा
বিশাখা Vishākham
വിശാഖം
Visakam
விசாகம்
Viśākha
విశాఖ
Viśākhe
ವಿಶಾಖೆ
α, β, γ ও ι Librae
১৭ অনুরাধা
अनुराधा
অনুরাধা Anizham
അനിഴം
Anusham
அனுஷம்
Anurādhā
అనురాధా
Anurādhā
ಅನುರಾಧ
β, δ ও π Scorpionis
১৮ জ্যেষ্ঠা
ज्येष्ठा
জ্যেষ্ঠা Kēṭṭa (Trikkēṭṭa)
കേട്ട (തൃക്കേട്ട)
Kettai
கேட்டை
Jyeṣṭha
జ్యేష్ఠ
Jyeṣṭha
ಜ್ಯೇಷ್ಠ
α, σ, ও τ Scorpionis
১৯ মূল
मूल
মূলা Mūlam
മൂലം
Mūlam
மூலம்
Mūla
మూల
Mūla
ಮೂಲ
ε, ζ, η, θ, ι, κ, λ, μ ও ν Scorpionis
২০ পূর্বাষাঢ়া
पूर्वाषाढा
পূর্বাষাঢ়া Pūrāṭam
പൂരാടം
Pūradam
பூராடம்
Pūrvāṣāḍha
పూర్వాషాఢ
Pūrvāṣāḍha
ಪೂರ್ವಾಷಾಢ
δ ও ε Sagittarii
২১ উত্তরাষাঢ়া
उत्तराषाढा
উত্তরাষাঢ়া Utrāṭam
ഉത്രാടം
Uthirādam
உத்திராடம்
Uttarāṣāḍha
ఉత్తరాషాఢ
Uttarāṣāḍha
ಉತ್ತರಾಷಾಢ
ζ ও σ Sagittarii
২২ শ্রবণ
श्रवण
শ্রবণা Tiruvōnam
ഓണം (തിരുവോണം)
Tiruvōnam
திருவோணம்
Śravaṇaṁ
శ్రవణం
Śravaṇa
ಶ್ರವಣ
α, β ও γ Aquilae
২৩ শ্রবিষ্ঠা বা ধনিষ্ঠা
श्रविष्ठा or धनिष्ठा
ধনিষ্ঠা (শ্রবিষ্ঠা) Aviṭṭam
അവിട്ടം
Aviṭṭam
அவிட்டம்
Dhaniṣṭha
ధనిష్ఠ
Dhaniṣṭha
ಧನಿಷ್ಠ
α থেকে δ Delphinus
২৪ শতভিষক্ বা শততারকা
शतभिषक् / शततारका
শতভিষা Chatayam
ചതയം
Sadayam
சதயம்
Śatabhiṣaṁ
శతభిషం
Śatabhiṣa
ಶತಭಿಷ
γ Aquarii
২৫ পূর্বভাদ্রপদা বা পূর্বপ্রোষ্ঠপদা
पूर्वभाद्रपदा / पूर्वप्रोष्ठपदा
পূর্বভাদ্রপদ Pūruruṭṭāti
പൂരുരുട്ടാതി
Pūraṭṭādhi
பூரட்டாதி
Pūrvābhādra
పూర్వాభాద్ర
Pūrvābhādra
ಪೂರ್ವಾ ಭಾದ್ರ
α ও β Pegasi
২৬ উত্তরভাদ্রপদা বা উত্তরপ্রোষ্ঠপদা
उत्तरभाद्रपदा / उत्तरप्रोष्ठपदा
উত্তরভাদ্রপদ Uttṛṭṭāti
ഉത്രട്ടാതി
Uttṛṭṭādhi
உத்திரட்டாதி
Uttarābhādra
ఉత్తరాభాద్ర
Uttarābhādra
ಉತ್ತರಾ ಭಾದ್ರ
γ Pegasi ও α Andromedae
২৭ রেবতী
रेवती
রেবতী Rēvati
രേവതി
Rēvathi
ரேவதி
Rēvati
రేవతి
Rēvati
ರೇವತಿ
ζ Piscium

যোগ

সংস্কৃত শব্দ যোগ-এর অর্থ "যুক্ত করা", কিন্তু জ্যোতির্বিদ্যায় শব্দটি "শ্রেণিবদ্ধ করা" অর্থে ব্যবহৃত হয়। প্রথম ক্ষেত্রে, মেষ রাশি বা মেষাদিকে আদিবিন্দু ধরে নিয়ে কোনো গ্রহের কক্ষপথের কৌণিক অবস্থান নির্ণয় করা যায়। একে ওই গ্রহের দ্রাঘিমা বলা হয়। তারপর সূর্যের দ্রাঘিমা ও চাঁদের দ্রাঘিমা যোগ করে, তাকে সরল করে ০° থেকে ৩৬০°-এর মধ্যে একটি মানে নিয়ে আসা হয় (মান ৩৬০°-এর বেশি হলে, তা থেকে ৩৬০ বিয়োগ করা হয়)। এই যোগফলকে ২৭টি ভাগে বিভক্ত করা হয়। প্রত্যেকটি ভাগ ৮০০’-এর সমান (এখানে বা মিনিট হল এক ডিগ্রির ১/৬০ অংশ)। এক-একটি ভাগকে যোগ বলা হয়। এদের নাম:

  1. বিষ্কুম্ভ
  2. প্রীতি
  3. আয়ুষ্মান্
  4. সৌভাগ্য
  5. শোভন
  6. অতিগণ্ড
  7. সুকর্মা
  8. ধৃতি
  9. শূল
  10. গণ্ড
  11. বৃদ্ধি
  12. ধ্রুব
  13. ব্যাঘাত
  14. হর্ষণ
  15. বজ্র
  16. অসৃক
  17. ব্যতিপাত
  18. বরীয়ান্
  19. পরিঘ
  20. শিব
  21. সিদ্ধ
  22. সাধ্য
  23. শুভ
  24. শুক্ল
  25. ব্রহ্ম
  26. মাহেন্দ্র
  27. বৈধৃতি

এরও একাধিক সংস্করণ উপলব্ধ। দিনের সূর্যোদয়ের সময় যে যোগ চলমান থাকে, তাকেই সংশ্লিষ্ট দিনের যোগ ধরে নেওয়া হয়।

করণ

করণ হল তিথির অর্ধেক। সূর্য ও চাঁদের মধ্যে ০° থেকে ৬° কোণ সম্পূর্ণ করতে যে কৌণিক দূরত্ব অতিক্রম করতে হয়, তা-ই হল করণ।

১টি তিথি = ২টি করণ। অর্থাৎ তিথি মোট ৩০টি হলে, করণের সংখ্যা মোট ৬০টি। কিন্তু ৩০টি তিথিকে সম্পূর্ণ করতে মোটে ১১টি করণই নির্দিষ্ট করা হয়েছে। এদের মধ্যে চারটি ধ্রুবকরণ (স্থির) ও সাতটি চরকরণ (চলমান)।

৪টি ধ্রুবকরণ হল:

  1. শকুনি
  2. নাগ
  3. চতুষ্পাদ
  4. কিন্তুঘ্ন

৭টি চরকরণ হল:

  1. বব
  2. বালব
  3. কৌলব
  4. তৈতিল
  5. গর
  6. বণিজ্
  7. বিষ্টি
  • শুক্ল পক্ষের প্রথমা তিথির প্রথমার্ধ

সর্বদা কিন্তুঘ্ন করণ হয়। তাই এই করণটি ধ্রুব।

  • এরপর সাতটি চরকরণ পরবর্তী ৫৬টি অর্ধ-তিথিকে পূরণ করতে পরপর ৮ বার পুনরাবৃত্ত হয়।
  • বাকি তিনটি অর্ধ-তিথিতে কিন্তুঘ্ন বাদে অন্য তিনটি ধ্রুবকরণ অবস্থান করে।
  • এইভাবে ১১টি করণ মিলে একত্রে ৬০টি করণ গঠন করে।

বৈদিক দিন শুরু হয় সূর্যোদয় দিয়ে। সূর্যোদয়ের সময় চলমান করণটিই হয় সারাদিনের নির্দিষ্ট করণ।

Other Languages
Afrikaans: Hindoekalender
العربية: تقويم هندي
azərbaycanca: Hind təqvimi
беларуская (тарашкевіца)‎: Індуісцкія календары
भोजपुरी: हिंदू पतरा
Esperanto: Hinda kalendaro
euskara: Egutegi hindu
गोंयची कोंकणी / Gõychi Konknni: पंचांग
ગુજરાતી: શક સંવત
Bahasa Indonesia: Kalender Hindu
Bahasa Melayu: Kalendar Hindu
Nederlands: Hindoekalender
norsk nynorsk: Hindukalendrar
پنجابی: دیسی مہینے
português: Calendário hindu
srpskohrvatski / српскохрватски: Hindu kalendar
Simple English: Hindu calendar
Basa Sunda: Kalénder Hindu
Türkçe: Hindu takvimi